‘ফিটনেস ছিল না’ উল্টে যাওয়া ফেরিটির

মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জের পাটুরিয়ায় ৫ নম্বর ফেরিঘাটে যানবাহনসহ আমানত শাহ ফেরি উল্টে যাওয়ার ঘটনায় দ্বিতীয় দিনের মতো অভিযান শুরু হয়েছে। অভিযান শুরুর দ্বিতীয় দিনে আরও একটি কাভার্ড ভ্যান উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) সকাল সোয়া ৮টার দিকে ভেতরে আটকা পড়া ট্রাক উদ্ধারে অভিযান শুরু করে উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা। জানিয়েছে ফেরিঘাট সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এদিকে মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে কাত হয়ে আংশিক ডুবে যাওয়া ফেরিটি ফিটনেস ছাড়াই পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে চলাচল করছিল বলে জানিয়েছেন অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) একজন কর্মকর্তা।

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসির এজিএম (মেরিন) আব্দুস সাত্তার বলেন, ‘উল্টে যাওয়া ফেরি শাহ আমানতের ফিটনেস ছিল না। ফিটনেসবিহীনভাবেই এটি নৌরুটে চলাচল করত। ফিটনেসের জন্য র্দীঘদিন আগে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে আবেদন করা হয়েছিল।’

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান জানিয়েছেন ফেরিটি চার মাস আগে মেরামত করা হয়েছিল। তিনি বলেন, ‘শাহ আমানত ১৯৭৯ সালে তৎকালীন আরিচা ফেরি সেক্টরে যোগ হয়। এরপর নাব্য সংকটের কারণে ২০০২ সালের পাটুরিয়া ফেরি ঘাট স্থানান্তর করা হয় এবং ফেরির তলায় সমস্যা থাকায় গত চার মাস আগে নারায়ণগঞ্জ থেকে ফেরিটি মেরামত করা হয়।’