লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৩২ লাশের দাবিদার ৪৮ জন

ঢাকা-বরগুনা নৌরুটের ঝালকাঠি সংলগ্ন সুগন্ধা নদীতে বরগুনাগামী অভিযান-১০ লঞ্চে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৩২ জনের দাবিদার হয়ে আসা ৪৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করেছে সিআইডির ডিএনএ ফরেনসিক ল্যাব।

অপরদিকে লঞ্চের এ অগ্নিকাণ্ডের ৬ষ্ঠ দিনে বরগুনাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের নিখোঁজ হওয়া ৩২ জনের তালিকা এসে পৌঁছেছে বরগুনা জেলা প্রশাসনের কাছে।

নিখোঁজের তালিকায় রয়েছেন- বরগুনা সদর উপজেলার কুমরাখালী গ্রামের হনুফা আক্তার রিমু (২১), ঢলুয়া ইউনিয়নের মোস্তাচ্ছিম (১০), বালিয়াতলীর ইদ্রিস খান (৫২), বেতাগী উপজেলার দক্ষিণ করোনার রোশনি আক্তার রিমা (১৫), বেতাগী উপজেলার দক্ষিণ করোনার রিনা বেগম (৩৫), পাথরঘাটা উপজেলার টেংরাগিরির ফজিলা আক্তার পপি (৩৭), তালতলী উপজেলার ছোট বগীর রেখা বেগম (৩৮), তালতলীর কাজিরখিল গ্রামের রাসেল মিয়া (৩৩), তালতলীর জাকির তবকের জুনায়েদ হোসেন (০৫), বেতাগীর মোকামিয়ার তরিকুল ইসলাম (৩৫) , একই এলাকার কুলসুম (০৪), বরগুনা সদর উপজেলার হাকিম শরীফ (৪৫), সদরের লবনগোলা পাখি বেগম (৩২), বড় লবনগোলার নছরুল্লাহ (০২), পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের রিনা বেগম (৩২), উপজেলার দেউলির রুনু আক্তার লিমা (১৪), উপজেলার শ্রীনগরের জাহানারা বেগম (৪৫), বরগুনার বামনা উপজেলার ঘোলাঘাটার হাকিম হাওলাদার (৬৮) , বামনা উপজেলার নিমতলীর হাসিব (২০), বরগুনার সদরের রাজিয়া সুলতানা (৪০), একই উপজেলার পরীরখালের নুসরাত (০৮) , ঢলুয়া গ্রামের মাহিন (৩৪), নরসিংদী জেলা সদরের ইমন (০৮), বরগুনা সদর এর তাসলিমা (৩৫), একই উপজেলার মোল্লার হোড়া গ্রামের মিম (১৫), তানিশা (১২), ঢাকা জেলার ডেমরার জুনায়েদ (০৮), বরগুনা সদর উপজেলার রায়ের তবকের শারমিন আক্তার পান্না (২৫), আব্দুল্লাহ (০৪), আছিয়া (০১), জীবন (১২), বরগুনার সদরের খেজুরতলার শিমু (২৩)।

বরগুনা জেলা প্রশাসন সিআইডির ফরেনসিক ল্যাবের কাছে ৩২টি লাশের একটি তালিকা হস্তান্তর করেছেন। এর প্রেক্ষিতে লাশের দাবি জানিয়ে ৪৮ জন নমুনা প্রদান করেছেন সিআইডির কাছে।

সিআইডি ফরেনসিক ল্যাবের পরীক্ষক মো. রবিউল ইসলাম (ডিএনএ) বলেন, জেলা প্রশাসনের দেয়া নিখোঁজ ৩২ জনের তালিকায় ৪৪ জন নমুনা দিয়েছে। এছাড়া ঝালকাঠি থেকে আরও ৪ জন নমুনা দিয়েছেন। ইতোমধ্যে নিখোঁজ তালিকার ২টি মরদেহ শনাক্ত হয়েছে।

SHARE
Previous articleAVG Antivirus Review